পদত্যাগ করলেন কপিল দেব

বিসিসিআইয়ের ক্রিকেট পরামর্শক কমিটির (সিএসি) প্রধানের পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন ভারতের বিশ্বকাপজয়ী সাবেক অধিনায়ক কপিল দেব। তার নেতৃত্বাধীন কমিটির সুপারিশেই গত আগস্টে রবি শাস্ত্রীকে ভারতীয় দলের কোচ নির্বাচিত করা হয়েছিল।

সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত প্রকাশক কমিটির কাছে কাছে ই-মেইল পাঠিয়ে সিএসি-এর প্রধানের পদ থেকে পদত্যাগ করার কথা জানিয়েছেন কপিল। কিন্তু কী কারণে তিনি এই কমিটি থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেন, তা উল্লেখ করেননি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর, কপিলের বিরুদ্ধে স্বার্থ সংঘাতের যে অভিযোগ উঠেছে, তার পরিপ্রেক্ষিতেই পদত্যাগ করেছেন তিনি।

‘কনফ্লিক্ট অব ইন্টারেস্ট’ বা স্বার্থ সংঘাত বিতর্ক ভারতীয় ক্রিকেটে নতুন নয়। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডে (বিসিসিআই) অনেকেই এই স্বার্থ সংঘাতের বলি হয়েছেন।

গত জুলাইয়ে ক্রিকেট পরামর্শক কমিটির সদস্য হিসেবে নিয়োগ পান কপিলসহ আরো দুজন। তাদের তত্ত্বাবধানেই ভারতীয় দলের কোচ নির্বাচন হয়। যেখানে শাস্ত্রীকে আবারো কোহলিদের কোচ হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে।

এরপরই কপিলসহ কমিটির অন্য দুই সদস্য সাবেক ভারতীয় ওপেনার অংশুমান গায়কোয়াড় ও সাবেক নারী ক্রিকেটার শান্তা রঙ্গস্বামীর বিরুদ্ধে স্বার্থ সংঘাতের অভিযোগ ওঠে। তাদের এ বিষয়ক একটি নোটিশ পাঠান বোর্ডের নীতি-নৈতিকতা বিষয়ক কর্মকর্তা ডিকে জৈন। অভিযোগটি করেন মধ্যপ্রদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য সঞ্জীব গুপ্ত।

বিসিসিআইয়ের সংবিধান মতে, একই সঙ্গে একাধিক পদে থাকা যায় না। সেখানেই সঞ্জীব অভিযোগ এনেছেন, ক্রিকেট সংক্রান্ত একাধিক পদে রয়েছেন কপিল। তার অভিযোগ, কপিল একই সঙ্গে ধারাভাষ্যকার, একটি ফ্লাডলাইট কোম্পানির মালিক, ক্রিকেট পরামর্শক কমিটির সদস্য, আবার ভারতীয় ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যও।

অভিযোগের পর মঙ্গলবার ক্রিকেট পরামর্শক কমিটি থেকে পদত্যাগ করেন রঙ্গস্বামী। বুধবার পদত্যাগ করলেন কপিলও। ফলে স্বচ্ছতার কারণে বিসিসিআইকে আবার নতুন করে কোচ নির্বাচন প্রক্রিয়া আয়োজন করতে হতে পারে। সেক্ষেত্রে আবার নতুন ক্রিকেট পরামর্শক কমিটি গঠন করে কোচ নির্বাচন করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *