দেশের বাজারে আসছে শাওমির নতুন দুই ফোন

টেক আর্টিকেল: বাংলাদেশের বাজারে ‘রেডমি৬’ এবং ‘রেডমি৬এ’ নামে নতুন দুটি মোবাইল ফোন আনছে শীর্ষ মোবাইল ব্র্যান্ড শাওমি। রেডমি৬ ফোনে হেলিও পি২২ ও রেডমি৬এ ফোনে এ২২ চিপসেট ব্যবহার করা হয়েছে, যার পুরুত্ব হবে ১২ ন্যানোমিটার।

রেডমি৫এ-এর পরবর্তী মডেল ফোন হলো রেডমি৬এ। কাউন্টারপয়েন্টের রিসার্চ অনুযায়ী, ২০১৮ সালের প্রথম প্রান্তিকে বিশ্বব্যাপী সর্বোচ্চ বিক্রির তালিকায় শীর্ষে অবস্থান করছে রেডমি৬এ ফোনটি।

ভারতীয় উপমহাদেশ ও শাওমি ইন্ডিয়ার ওভারসিস এক্সপ্যানশন বিভাগের প্রধান সাংকেত আগারওয়াল বলেন, ‘শাওমিতে, সবসময় আমরা নিজেদের সীমানা প্রসারিত করতে পছন্দ করি এবং দামের বিবেচনায় আমরা সব ব্যবহারকারীদের জন্য স্বল্পমূল্যে উন্নতমানের পণ্য সরবরাহ করার চেষ্টা করি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের বাজারে আমরা রেডমি৬’ এবং ‘রেডমি৬এ’ স্মার্টফোন দুটি আনতে পেরে খুবই গর্বিত, যা আমাদের মূল দর্শনের প্রতিফলন। এই ফোন দুটিই একমাত্র ফোন, যা ১২ ন্যানোমিটার পুরু। আমরা আশা করছি, পারফরমেন্সের বিচারে বাংলাদেশের বাজারেও রেডমি৬’ এবং ‘রেডমি৬এ’ সফলতা অর্জন করবে। রেডমি৬ ডুয়াল ক্যামেরা, অক্টাকোর স্পিড

রেডমি৬ ফোনে সর্বশেষ হেলিও পি২২ অক্টাকোর এসওসি প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে, যার পুরুত্ব মাত্র ১২ ন্যানোমিটার। ফলে ২৮ ন্যানোমিটার চিপসেট ব্যবহার করা যেকোনো ফোনের চেয়ে এই ফোনে ৪৮ শতাংশ চার্জ কম খরচ হবে।

ফোনটিতে আইএমজি পাওয়ারভিআর জিই-ক্লাস জিপিইউ ও ২.০ গিগাহার্টজের কোয়াড-কোর এধারএম কোর্টেক্স-এ৫৩ ব্যবহার করা হয়েছে। ফোনের সিপিইউ ও জিপিইউ’র পারফরমেন্স প্রতিযোগিদের চেয়ে যথাক্রমে ৩০ শতাংশ ও ৭২ শতাংশ বেশি।

ফোনটিতে এইচডিপ্লাস ১৪৪০*৭২০ পিক্সেলের ৫.৪৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে আছে। ফোনের পেছনে পলিকার্বোনেটের প্যানেল রাখা হয়েছে, যা দেখতে মসৃণ ধাতুর মতো।ফোনটিতে ১২ মেগাপিক্সেল ও ৫ মেগাপিক্সেলের কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন দুটি রেয়ার ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে। প্রধান সেন্সরটির ১.২৫ ইউএম লার্জ পিক্সেল আছে, যা এই দামের স্মার্টফোনের মধ্যে খুবই জনপ্রিয।

বড় পিক্সেলে ছোট পিক্সেলের চেয়ে বেশি আলো ব্যবহার হয়, যা ছবির মান বাড়িয়ে দেয় এবং শব্দ কম হয়। বিশেষ করে স্বল্প আলোতে ছবি নেওয়ার সময় সুবিধা হয়। এছাড়াও ফোনটিতে ফোকাস স্পিড বাড়াতে পেজ-ডিটেশশন অটোফোকাস (পিডিএএফ) ব্যবহার করা হয়েছে।

ফলে ব্যবহারকারীরা গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্ত এবং ইলেকট্রনিক্স ইমেজ স্ট্যাবলাইজেশন (ইআইএস) মিস করবে না। সামনের ৫ মেগাপিক্সেলে ক্যামেরায় শাওমির কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন পোর্ট্রেইট মুড ব্যবহার করা হয়েছে, যা ব্যবহারে বাস্তব বুকে প্রভাব উপভোগ করা যাবে।

এরবাইরে রেডমি৬ ফোনটিতে অ্যান্ড্রয়েড ওরিও বেজড এমআইইউআই ৯.৬ ব্যবহার করা যাবে, যেখানে ফুল স্ক্রিন ইশারা সাপোর্ট করবে এবং স্ক্রিনের সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করবে।
আগামী মাসে রেডমি৬ ফোনটি এমআইইউআই ১০ ভার্সন আপগ্রেড করা হবে। ৩জিবি র‌্যাম ও ৩২জিবি স্টোরেজ থাকবে ফোনটিতে। ফোনটির দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ১২,৯৯৯ টাকা। আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশের বাজারে ফোনটি পাওয়া যাবে।

৯৯৯৯ টাকায় ‘রেডমি৬এ’

‘রেডমি৬এ’ ফোনটি ‘রেডমি৬’ এর মতো একই নকশায় অনুসরণ করা হয়েছে। যেটাতে ব্যবহার করা হয়েছে ৫.৪৫ ইঞ্চি এইচডি প্লাস ১৮:৯ ডিসপ্লে ও ৭২০*১৪৪০ রেজুলেশন। ফোনটিতে হেলিও এ২২ এসওসি প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে।

একই দামের অন্য ব্র্যান্ডের স্মার্টফোনের মধ্যে রেডমি৬এ ফোনটিই একমাত্র ফোন যেটাতে ১২ ন্যানোমিটার প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। ফোনটিতে ৩ হাজার অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে, যা টানা ৯ দিন স্ট্যান্ডবাই থাকবে।

ফোনে অটোফোকাস সমৃদ্ধ ১৩ মেগাপিক্সেল রেয়ার ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে এবং সামনে ৫ মেগাপিক্সেলের শাওমির কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে।

ফোনটিতে এমআইইউআই ৯.৬ বেজড অ্যান্ড্রয়েড ও ব্যবহার করা হয়েছে। ২ জিবি র‌্যাম ১২ জিবি স্টোরেজ থাকবে ফোনটিতে। যার বাজার মূল্য ধরা হয়েছে ৯ হাজার ৯৯৯ টাকা। আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশের বাজারে ফোনটি পাওয়া যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *