খোদা কি ওয়াস্তে হামে বাংলাদেশ বানা দো, পাঁচ সাল নেহি ১০ সালসে!

আর্টিকেল: এক দশক ধরে আর্থিক ও সামাজিক সূচকে বাংলাদেশের অগ্রগতি প্রশংসনীয়। প্রবৃদ্ধির হার দীর্ঘদিন ৬-এর ঘরে আটকে থেকে তিন বছর আগে ৭-এর ঘরে পড়েছে; এ বছর প্রায় ৮ শতাংশ হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

সরকার মনে করছে, চূড়ান্ত হিসাবে এ হার হতে পারে। প্রায় তিন বছর আগেই বিশ্বব্যাংকের পরিগণনায় বাংলাদেশ নিম্ন-মধ্যম আয়ের দেশে পৌঁছে গেছে এবং জাতিসংঘ ঘোষিত স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের প্রাথমিক পরীক্ষায় ভালোভাবে উত্তীর্ণ হয়েছে।

কয়েক দশক আগে ব্রিটিশ ও পাকিস্তানের শোষণ মুক্তি পাওয়া বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অবস্থা যখন এই, তখনই পাকিস্তানকে বাংলাদেশের মতো হওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন সে দেশের বুদ্ধিজীবীরা।

সম্প্রতি জাতীয় নির্বাচনে গদিতে বসেছেন এক সময়কার তুখোড় ক্রিকেটার ইমরান খান। তার দল তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)। ক্ষমতার মসনদে বসার পরই দেশটির নবনিযুক্ত প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ঘোষণা দিয়েছেন- তার সরকার দেশ পরিচালনায় সুইডিশ গভর্নেন্স মডেল অনুসরণ করবে। এক কথায় পাঁচ বছরের মধ্যে পাকিস্তানকে সুইডেনে রূপান্তরের স্বপ্ন দেখাচ্ছেন তিনি।

কিন্তু বুদ্ধিজীবীরা বলছেন, পাকিস্তান ৫ বছরের মধ্যে সুইডেন নয়, ১০ বছরে অন্তত বাংলাদেশের মতো উন্নতি করুক।

সম্প্রতি পাকিস্তানের ক্যাপিটাল টিভি চ্যানেলে প্রচারিত একটি টক-শোর ভিডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়েছে ইন্টারনেটে। যেখানে এক বক্তা বাংলাদেশের প্রসঙ্গ টেনে এনেছেন।

বাংলাদেশ পাকিস্তানের চেয়ে কতটা এগিয়ে গেছে, সে দৃষ্টান্ত দেখিয়ে তিনি ইমরান খানের উদ্দেশে বলেছেন, আরে, খোদা কি ওয়াস্তে হামে বাংলাদেশ বানা দো! পাঁচ বছর নয়, অন্তত দশ বছরের মধ্যেও যেন ইমরান খান পাকিস্তানকে বাংলাদেশের সমপর্যায়ে নিয়ে আসতে পারেন।

ভিডিওটি এরইমধ্যে বাংলাদেশের নানা প্রান্তের মানুষ ফেসবুক, ইউটিউবে ছড়িয়ে দিচ্ছেন। বাংলাদেশ পাকিস্তানের চেয়ে কতটা এগিয়ে গেছে, সে ব্যাপারে কথা বলতে গিয়ে ভিডিওতে ওই বক্তা কয়েকটি বিশেষ খাতের উদাহরণ দেখিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, বাংলাদেশের স্টক এক্সচেঞ্জে বছরে ৩০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার লেনদেন হয়, যেখানে পাকিস্তানে হয় মাত্র ১০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। আবার বাংলাদেশ বছরে রপ্তানি খাতে আয় করে ৪০ বিলিয়ন ডলার, যেখানে পাকিস্তানের আয় মাত্র ২২ বিলিয়ন ডলার।

এইসব উদাহরণ দেখিয়ে তিনি বলেছেন, পিটিআই যদি সবকিছু ঠিকঠাকও করে, তবু সুইডেন কেন, আগামী দশ বছরে তাদের বাংলাদেশের সমান হওয়াও অনেক কঠিন হয়ে যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *