‘সারা জীবন অনুতপ্ত থাকব’: ব্যানক্রফট

ক্রিকেট: ক্রিকেটবিশ্ব এখন উত্তাল কেপ টাউন টেস্টে বল টেম্পারিং কাণ্ডে। বল টেম্পারিংয়ে যুক্ত থাকায় এক বছরের জন্য সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ হয়েছেন স্টিভেন স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার।

একই অপরাধে ক্যামেরন ব্যানক্রফটকেও নয় মাসের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)। বল টেম্পারিং কাণ্ডে সারা জীবন অনুতপ্ত থাকার কথা জানিয়েছেন ব্যানত্রফট।

দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে দেশে ফিরে অস্ট্রেলিয়ার তরুণ ওপেনার ব্যানক্রফট জানান, এই কাণ্ডের জন্য সারা জীবন তিনি অনুশোচনায় ভুগবেন।

প্রোটিয়াদের বিপক্ষে চার ম্যাচ সিরিজের শেষ ও চতুর্থ টেস্ট না খেলেই দেশের বিমান ধরেন স্মিথ-ওয়ার্নার-ব্যানক্রফট। ২৯ মার্চ, বৃহস্পতিবার নিজ শহর পার্থে ফিরে ২৫ বছর বয়সী ব্যানক্রফট ক্ষমা চাইলেন অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের সকল ভক্ত-সমর্থকদের কাছে।

সংবাদ সম্মেলনে ব্যানক্রফট বলেন, ‘কীভাবে সামনে এগিয়ে যাওয়া যায় আমি সে চিন্তাই করছি। এই কাজের জন্য আমি সারা জীবন অনুতপ্ত থাকব। আমি সবার কাছে ক্ষমা চাইছি। সেদিন যা হয়েছে তার জন্য আমি দায়ী। এটা এমন কিছু যার জন্য আমি লজ্জিত।’

কেপ টাউন টেস্টে বল টেম্পারিং সবার সামনে আসার পর সংবাদ সম্মেলনে ব্যাকক্রফট জানান, স্টিকি টেপ দিয়ে তিনি বলের আকৃতি পরিবর্তন করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু বৃহস্পতিবার তিনি জানান, সেদিন আতঙ্কে মিথ্যা বলেছিলেন।

এ নিয়ে ব্যানক্রফটের ভাষ্য, ‘হ্যাঁ, আমি সেদিন মিথ্যা বলেছিলাম। আতঙ্কিত হয়ে আমি মিথ্যা বলেছিলাম। স্টিকি টেপ নয়, শিরিষ কাগজ দিয়ে বল টেম্পারিং করেছিলাম।

আমি এর জন্য দুঃখিত। আমি ক্রিকেট খেলাটা ভালোবাসি। দেশের হয়ে খেলতে গর্ব বোধ করি। আমি আমার কর্মকাণ্ড নিয়ে হতাশ।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *