ছাত্রীকে নগ্ন হয়ে নাচতে বললেন জবি শিক্ষক

আর্টিকেল: জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) বাংলা বিভাগের এক ছাত্রীকে ক্লাস থেকে বেরিয়ে নগ্ন হয়ে নাচতে বলার অভিযোগ উঠেছে ওই বিভাগের অধ্যাপক এবং বিশ্ববিদ্যালয় জনসংযোগ পরিচালক ড. মিল্টন বিশ্বাসের বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার ২০১৪-১৫ বর্ষের ওই ছাত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কাছে লিখিতভাবে এমন অভিযোগ দিয়েছেন।

জানা যায়, গত ১৯ ফেব্রুয়ারি (সোমবার) ওই ছাত্রী ক্লাস চলাকালে সহপাঠীদের সাথে কথা বলেন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে মিল্টন বিশ্বাস তাকে সহপাঠীদের সামনে দাঁড় করান। ছাত্রীর উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘ক্লাস ভালো না লাগলে বাহিরে চলে যাও আর নগ্ন হয়ে নাচো। তুমি তো মেয়ে, মেয়েরা নগ্ন হয়ে তো নাচেই । তুমি নাচতেই পারো।’

ওই শিক্ষার্থী সাংবাদিকদের বলেন, ‘উনি একজন শিক্ষক এবং একজন অধ্যাপক হয়ে এমন কথা বলতে পারেন না। আমি মানছি এবং বুঝে স্বীকার করছি যে, ক্লাস চলাকালীন সহপাঠীদের সাথে কথা বলা আমার অন্যায় হয়েছে। আমি তার মেয়ের বয়সের । তাই বলে আমাকে তিনি এমন অশালীন কথা বলতে পারেন না।’

তিনি বলেন, ‘আমি জানি না তার কি হবে বা কি বিচার হওয়া উচিত। বিষয়টি আমার কাছে খুবই লাঞ্ছনার মনে হয়েছে। তাই লিখিতভাবে প্রক্টর এবং উপাচার্যকে জানিয়েছি। এখন তারা যা ব্যবস্থা নেন।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান এবং অধ্যাপক হোসনে আরা জলি সাংবাদিকদের বলেন, ‘এমন একটি ঘটনা আমি জানি।’ এ বিষয়ে টেলিফোনে মিল্টন বিশ্বাসের কাছে জানতে চাইলে তিনি ক্ষুব্ধ হয়ে এ প্রতিবেদককে বলেন, ‘অভিযোগটা কি তোমার কাছে দিয়েছে? তুমি কে এ বিষয়ে কথা বলার ? তুমি ক্যাম্পাসের গেটে দাঁড়াও আমি আসছি।’

জবি প্রক্টর ড. নূর মোহাম্মদ বলেন, ‘আমাদের কাছে এমন একটি অভিযোগ এসেছে। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনও শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ আসলে তা প্রক্টর নয় বরং উপাচার্য বরাবর করতে হয়। তাই অভিযোগটি উপাচার্যের কাছে পৌঁছে দিয়েছি।’

এ বিষয়ে উপাচার্যের সঙ্গে টেলিফোনে বার বার যোগাযোগের চেষ্টা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *