হোয়াইটওয়াশের লজ্জা ঢাকলো ভারত

খেলাধুলা: কেপটাউন এবং সেঞ্চুরিয়ানে হেরে আগেই সিরিজ খুইয়েছিল ভারত। জোহানেসবার্গের ওয়ান্ডারার্সে এসেছিল তারা হোয়াইটওয়াশের লজ্জা বাঁচানোর জন্য। এই মাঠটি ভারতীয়দের জন্য বেশ পয়া ভেন্যু। আগে খেলা চারটি টেস্টের মধ্যে একটি জিতেছে, বাকি তিনটি ড্র করেছে। অর্থাৎ একটিতেও হারেনি ভারত; বরং তারা এই মাঠে স্বাগতিকদের চেয়ে এগিয়েই ছিল।

মোহাম্মদ সামির কল্যাণে সেই রেকর্ড এবারো ধরে রাখলো তারা। স্বাগতিকদের ৬৩ রানে হারিয়ে হোয়াইটওয়াশ থেকে রক্ষা পেলো ভারতীয়রা। আর এ জয়ে ৭ বছর পর দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে টেস্ট জিতলো ভারত। আর এই জয়ে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ২-১ এ হারলো ভারত।

ভারতীয় পেসের সামনেই উড় গেছে দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটিং লাইনআপ। জয়ের জন্য চতুর্থ ইনিংসে মাত্র ২৪১ রান প্রয়োজন ছিল প্রোটিয়াদের। তৃতীয় দিন শেষ বিকেলে এইডেন মারক্রামের উইকেট পড়লেও চতুর্থদিন সকাল থেকে হাশিম আমলা আর ডিন এলগারের ব্যাটে দুর্দান্ত গতিতে জয়ের দিকেই এগিয়ে চলছিল স্বাগতিকরা।

আমলা আর এলগারের জুটিতে উঠলো ১১৯ রান। ১২৪ রানে গিয়ে দ্বিতীয় উইকেট পড়ার পরই যেন বালির বাধের মত ভেঙে পড়লো প্রোটিয়াদের সব প্রতিরোধ। ৫২ রান করে আউট হন আমলা। এরপর একপাশে এলগার দাঁড়িয়ে থাকলেও বাকিরা ছিলেন আসা-যাওয়া শুরু হয়ে ডি’ভিলিয়ার্স, ডু’প্লেসি, ডি’ককদের।

ডি ভিলিয়ার্স ৬, ডু প্লেসি ২, কুইন্টন ডি কক শূন্য, ভারনন ফিল্যান্ডার ১০, আন্দিল পেহলুকাইয়ো শূন্য, কাগিসো রাবাদা শূন্য এবং মরনে মর্কেল আউট হন শূন্য রানে। শেষ উইকেট হিসেবে আউট হন লুঙ্গি এনগিদি। তিনি করেন ৪ রান। অন্যপ্রান্তে ডিন এলগার ৮৬ রানে অপরাজিতই থেকে যান। দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে তিনি শুধু পরাজয়টাই লক্ষ্য করলেন। সঙ্গীর অভাবে দলকে জয় এনে দিতে পারলেন না। দল অলআউট হয়ে গেলো ১৭৭ রানে।

ভারতীয় বোলারদের মধ্যে মোহাম্মদ সামি একাই নেন ২৮ রানে ৫ উইকেট। জসপ্রিত বুমরাহ এবং ইশান্ত শর্মা নেন ২টি করে উইকেট। ভুবনেশ্বর কুমার নেন ১ উইকেট।

দুই ইনিংস মিলিয়ে ৬৬ রান করার পাশাপাশি বল হাতে চার উইকেট নেয়া ভুবনেশ্বর কুমার ম্যাচের সেরা ক্রিকেটার নির্বাচিত হয়েছেন৷ আর পুরো সিরিজ জুড়ে দুর্দান্ত পারফর্ম করা দক্ষিণ আফ্রিকার ভারনন ফিল্যান্ডার পেয়েছেন সিরিজ সেরার পুরস্কার।

প্রথম ইনিংসে ভারত করেছিল ১৮৭ রান। জবাবে দক্ষিণ আফ্রিকা মাত্র ৭ রানের লিড দেয় ভারতকে। অলআউট হয় ১৯৪ রানে। দ্বিতীয় ইনিংসে ভুবনেশ্বরের ব্যাটে চড়ে ২৪৭ রান পর্যন্ত যায় ভারতের ইনিংস। জয়ের জন্য ২৪১ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ১৭৭ রানে অলআউট হলো দক্ষিণ আফ্রিকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *