৩০০ মিটার পর্যন্ত দৃশ্যমান হয়েছে পদ্মা সেতু

জাতীয় আর্টিকেল: বসানো হলো স্বপ্নের পদ্মা সেতুর দ্বিতীয় স্প্যান। আজ শনিবার দুপুর ১২টার পর দ্বিতীয় স্প্যান বসানোর কাজ শেষ হয়। ৭বি স্প্যানটি (সুপার স্ট্রাকচার) ৩৮ ও ৩৯ নম্বর পিলারের ওপর বসানো হয়েছে। এর মাধ্যমে এখন সেতুটি ৩০০ মিটার দৃশ্যমান হয়েছে।

পিলারের উপর স্প্যান বসতে ৩৫ নম্বর পিলার এলাকা থেকে ৩ হাজার ৬শ’ টন ধারণ ক্ষমতার Tian Yi ক্রেনে করে নিয়ে যাওয়া হয় ৩৮ ও ৩৯ নম্বর পিলার এলাকায়।

৩৮ নম্বর পিলারের সঙ্গে ৭বি স্প্যানটিকে স্থায়ী ওয়েল্ডিং করে দেওয়া হবে এবং এরই মধ্যে লোড বহনের জন্য লিফটিং ফ্রেম তৈরি করা হয়েছে। স্প্যানটি পিলারের উপর রাখার পর বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরিক্ষা চালানো হচ্ছে। সব কিছু মিলিয়ে দুই থেকে তিন ঘণ্টা সময় লাগবে স্থায়ীভাবে স্প্যানটি বসতে।

৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ সেতুতে ৪২ পিলারের ওপর বসবে ৪১টি স্প্যান। পদ্মা বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো এবং সেতুর মোট পিলারের সংখ্যা ৪২টি।

এদিকে ড. জামিলুর রেজা চৌধুরীর সভাপতিত্বে বৃহস্পতিবার থেকে পদ্মা সেতুর ১১ সদস্যের বিশেষজ্ঞ প্যানেলের সভা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বৈঠকে পাঁচ জন বিদেশি বিশেষজ্ঞও রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সকালে এই টিম মাওয়া হয়ে জাজিরা সার্ভিস এরিয়ায় যান। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় এই সভা শুরু হয়। দুপুর ১টায় বিরতি দিয়ে আড়াইটায় আবার শুরু হয় সভা। তারপর সভা চলে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত।

শুক্রবারও প্রায় একই রুটিনে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত সভা চলে। পাইল, সুপার স্ট্রাকচার, সাব স্ট্রাকচারসহ বিভিন্ন ইস্যুতে সভা অনুষ্ঠিত হলেও এর এক নাম্বার এজেন্ডা হচ্ছে ১৪টি পিলারের নকশা চূড়ান্ত করা।

প্রকৌশলীরা জানিয়েছেন, শনিবার বিকেলে সভা শেষে এই ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেওয়া হতে পারে। বিভিন্ন পেপার ওয়ার্ক করে শনিবারের মধ্যে একটি সিদ্ধান্তে পৌঁছানো যাবে এবং ঠিকাদারদের তা জানিয়ে দেওয়ার ব্যাপারে তারা আশাবাদী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *