রাতের শিফটে কাজ করা নারীদের ক্যানসারের আশঙ্কা

টিবিটি সারাবিশ্ব: নাইট শিফটে কাজ করা নারীদের ক্যানসার হতে পারে। সম্প্রতি এক গবেষণায় বিষয়টি জানা গেছে। চীনের সিচুয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক পূর্বে করা অনেকগুলো গবেষণা প্রতিবেদন বিশ্লেষণ করে এ সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন। যেসকল নারী রাতের শিফটে কাজ করেন তাদের মধ্যে স্কিন, স্তন এবং পাকস্থলি ক্যানসারসহ  ১২ ধরনের ক্যানসার হবার ঝুঁকি অনেক বেশি থাকে।

সারাবিশ্বেই নারীরা স্তন ক্যানসার আক্রান্ত হয় সবচেয়ে বেশি, গবেষক দলটি এক মেটা এনালাইসিসে এ বিষয়টির সত্যতা খুঁজে পান।

যারা দিনের বেলায় কাজ করেন তাদের তুলনায় রাতের শিফটে কাজ করা নারী নার্সদের স্তন ক্যানসারের ঝুঁকি বেড়ে যায় ৫৮ পারসেন্ট এবং লাংগস ক্যানসার হবার সম্ভাবনা বেড়ে যায় ২৮ পারসেন্ট।

গবেষক দলটি উত্তর আমেরিকা, ইউরোপ, অস্ট্রেলিয়া এবং এশিয়া থেকে ৬১টি আর্টিক্যাল থেকে ১১৪৬২৮টি ক্যানসার কেসের ৩৯০৯১৫২ জন অংশগ্রহণকারীর মধ্যেকার তথ্য যাচাই করে। এই গবেষণায় বিশেষভাবে যেসকল নার্স দীর্ঘমেয়াদে নাইট শিফটে কাজ করেন তাদের বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে যে তাদের মধ্যে ছয় ধরনের ক্যানসার আক্রান্তের ঝুঁকি বেড়ে যায় ১৯ পারসেন্ট।

যখন গবেষক দলটি নির্দিষ্ট ধরনের ক্যানসারকে বিশ্লেষণ করতে যায়, তখন দেখা যায় নাইট শিফটে কাজ করা এসকল নারীদের স্কিন ক্যানসার (৪১ পারসেন্ট), স্তন ক্যানসার (৩২ পারসেন্ট) এবং পাকস্থলি ক্যানসার (১৮ পারসেন্ট) হবার ঝুঁকি অনেক বেড়ে যায়।

তবে গবেষণায় আরেকটি চমকপ্রদ তথ্য ও বেরিয়ে আসে। ক্যানসারের ঝুঁকি পৃথিবীর অন্যান্য মহাদেশগুলো থেকে উত্তর আমেরিকা এবং ইউরোপের নারীদের মধ্যে অনেক বেশি থাকে।

গবেষক দলের একজন ঝুয়েলেই মা বলেন, এই মহাদেশের নারীদের মধ্যে হরমোন রিলেটেড ক্যানসার যেমন  ব্রেস্ট ক্যানসারের ঝুঁকি অনেক বেশি থাকে কারণ তাদের সেক্স হরমোন লেভেল বেশি থাকে।

সব নারীদের মধ্যে নাইট শিফটে কাজ করা নার্সরাই সবচেয়ে বেশি ক্যানসারের ঝুঁকি বেশি থাকে বলে ‘ক্যানসার এপিডেমিলজি, বায়োমার্কারস এন্ড প্রিভেনশন’ নামক জার্নালে প্রকাশিত গবেষণা প্রতিবেদনে জানা গেছে।

অতএব, নাইট শিফটে কাজ করা নারীরা সচেতন হয়ে যান এখন থেকেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *