বিবিসির পরিবর্তে রিয়ালের আক্রমণে এই তিন তারকা

খেলাধুলা: গ্রীষ্মের দলবদল মৌসুম শুরু হতে এখনো সাড়ে ৬ মাসের মতো বাকি। তবে আগামী দলবদল মৌসুমটা আগুন তপ্তই হবে, তার উত্তাপটা টের পাওয়া যাচ্ছে এখনই। সাড়ে ৬ মাস পরের দলবদল মৌসুম নিয়ে আগাম উত্তেজনা ছড়াচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ। আরও একটু স্পষ্ট করে বললে, পরিবেশটা উত্তপ্ত করে তুলেছে রিয়াল মাদ্রিদের নতুন খেলোয়াড় ক্রয়ের পরিকল্পনা।

ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোকে বিক্রি করে দিয়ে নেইমারকে দলে ভেড়াতে চায় রিয়াল। গত কিছুদিন ধরেই ফুটবল দুনিয়ায় ঘুরে ফিরছে এই গুঞ্জন। চেলসির বেলজিয়াম মিডফিল্ডার/ফরোয়ার্ড এডেন হ্যাজার্ডও আছেন রিয়ালের রাডারে। এই অবস্থার মধ্যেই রিয়ালের মুখপাত্র হিসেবে বিবেচিত স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক মার্কা দিল আরও গরম খবর।

পত্রিকার দাবি, শুধু ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো নন। রিয়ালের বিখ্যাত আক্রমণ ত্রয়ী বিবিসির তিন সদস্যকেই (বেল বেনজেমা ও ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো) বিক্রি করে দেওয়ার পরিকল্পনা এঁটে ফেলেছে রিয়াল। বিবিসির অবসান ঘটিয়ে রিয়াল সভাপতি ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ নাকি গড়তে চাইছেন সম্পূর্ণ নতুন আক্রমণভাগ। আর পেরেজের সেই নতুন আক্রমণভাগের পরিকল্পনায় নেইমার, হ্যাজার্ডের পাশাপাশি আছেন বায়ার্ন মিউনিখের পোলিশ ফরোয়ার্ড রবার্ট লেভান্ডভস্কিও।

তিনজনের মধ্যে নেইমারই পেরেজের প্রধান ‘টার্গেট’। মার্কা জানিয়েছে, যে কোনো মূল্যে নেইমারকে চাই রিয়ালের। পিএসজির ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডের জন্য এরই মধ্যে বিশাল অঙ্কের টাকাও নাকি আলাদা করে রেখেছে রিয়াল! পেরেজ নাকি রিয়ালে ‘তৃতীয় গ্যালাকটিকোস’ গড়ার পাক্কা পরিকল্পনাই নিয়ে ফেলেছেন। এখন শুধু অপেক্ষা গ্রীষ্মের দলবদলের জন্য!

যুগে যুগে অনেক ক্লাবই দলে তারার মেলা বসিয়েছে। তবে দলে সত্যিকারের ‘গ্যালাকটিকোস বা নক্ষত্রপুঞ্জি’র স্বার্থক প্রয়োগ ঘটনায় রিয়াল। এই শতাব্দির শুরুর দিকে। এই সাফল্য পিপাসু পেরেজই ছিলেন তখন রিয়ালের সভাপতি। একের পর এক চুক্তির বিশ্ব রেকর্ড গড়ে পেরেজ দলে ভিড়িয়েছিলেন লুইস ফিগো, জিনেদিন জিদান, রোনাল্ডো, ডেভিড বেকহামদের মতো তারকাদের।

এদের এক ছাদের নিচে এনে পেরেজের রিয়ালই ‘গ্যালাকটিকোস’ শব্দটিকে ফুটবল দুনিয়ায় বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ করে তোলে। সেটাই ছিল রিয়ালের প্রথম ‘গ্যালাকটিকোস’। ২০০৯ সালে আবারেএক সঙ্গে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো, কাকা ও করিম বেনজেমাকে কিনে দলে ‘দ্বিতীয় গ্যালাকটিকোস’ অধ্যায়ের সূচনা করে রিয়াল। এখনো দ্বিতীয় এই ‘গ্যালাকটিকোস’ অধ্যায়ই চলছে। তবে একটু পরিবর্তন এসেছে। ২০১৩ সালে ব্রাজিলিয়ান কাকার জায়গায় রিয়াল রেকর্ড ১০০ মিলিয়ন ইউরোর ট্রান্সফার ফিতে দলে টানে গ্যারেথ বেলকে।

বেলের সঙ্গে চুক্তিটাই হয়ে আছে রিয়ালের সর্বশেষ বড় কোনো খেলোয়াড় কেনার ঘটনা। গত ৪ বছরে আর কোনো বড় চুক্তি করেনি মাদ্রিদ জায়ান্টরা! এই তথ্য রিয়ালের নামের সঙ্গে ঠিক যায় না। পেরেজের সঙ্গে আরও না! এই যে দীর্ঘ দিন ধরে বড় কোনো চুক্তি না করা, এবার নাকি খামতি পুষিয়ে ফেলতে চাইছেন পেরেজ!

বিবিসির তিন সদস্যই ফর্মখরায় ভুগছেন। রোনালদো, বেল, বেনজেমা, কেউই গোল করতে পারছেন না। পেরেজ তাই তিনজনকে নিয়েই হতাশ। পুরো আক্রমণভাগই তাই পাল্টে ফেলার পাকা সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন। পেরেজের পরিকল্পনায় নেইমার হবেন রিয়ালের নতুন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। বেলের জায়গা নেবেন হ্যাজার্ড। আর বেনজেমার পরিবর্তে ৯ নম্বর স্ট্রাইকার হিসেবে থাকবেন লেভান্ডভস্কি।

বায়ার্নের এই পোলিশ ফরোয়ার্ডের দিকে অনেক আগে থেকেই দৃষ্টি পেরেজের। আগামী মৌসুমে আশা মিটিয়ে ফেলতে চান। অবশ্য বয়সের দিকে তাকিয়ে লেভান্ডভস্কির বিকল্পও ভেবে রেখেছে রিয়াল। পোলিশ এই ফরোয়ার্ডের বয়স ৩০ হয়ে গেছে। পেরেজ তাই এখন তার কিছুটা নমনীয়। বায়ার্ন সহজ শর্তে রাজি হলে চুক্তি করবেন না। নচেৎ নয়। সেক্ষেত্রে বেনজেমার জায়গা নেবেন কে? লেভান্ডভস্কির বিকল্প হিসেবে রিয়ালের রাডারে আছেন ইন্টার মিলানের আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড মাউরো ইকার্দি ও টটেনহামের ইংলিশ ফরোয়ার্ড হ্যারি কেন।

পরিস্থিতি যা, তাতে আগামী দলবদল মৌসুম শুধু জমজমাটই হবে না, পুরোটা জুড়েই থাকবে রিয়াল চমক!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *