যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস কিনলো কাতারের রাজ পরিবার

আন্তর্জাতিক আর্টিকেল: লন্ডনের অক্সফোর্ড স্ট্রিটে অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসটি বিক্রি করা হয়েছে। ৩১৫ মিলিয়ন ডলারে দূতাবাসটি কিনে নিয়েছে কাতারের রাজ পরিবার। পুরনো এ দূতাবাসটিতে আরও ১ দশমিক ৪ বিলিয়ন ডলার খরচ করে একটি পূর্ণাঙ্গ ৫ তারকা হোটেল বানানো হবে।

যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসটি বিক্রির পর টেমস নদীর তীরে নতুন দূতাবাস তৈরি করেছে। নির্মিত নতুন দূতাবাসটি বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল ও দৃষ্টিনন্দন হওয়ায় ইতোমধ্যে বেশ আলোচিত হয়েছে। দেশটির কূটনীতিকরা আগামী ফেব্রুয়ারিতে নতুন ভবনে ওঠবেন।

এর আগে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প অভিযোগ করেছিলেন, অক্সফোর্ড ট্রিটের দূতাবাসটি সামান্য মূল্যে বিক্রি করা হয়েছে। প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সময়ে ২০১৩ সালে কাতারের রাজ পরিবারের কাছে এটি বিক্রি করা হয়। বাজারমূল্য প্রায় ৫০০ মিলিয়ন ডলার হওয়ার পরেও সেটি ৩১৫ মিলিয়ন ডলারে বিক্রি করা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

লন্ডনের ভূমি রেজিস্ট্রেশন অফিসের বরাত দিয়ে ডেইলি মেইলে বলা হয়েছে, অক্সফোর্ড স্ট্রিটের দূতাবাসটি ৯৯৯ বছরের জন্য বিক্রি করা হয়েছে। বারাক ওবামার সময়ে এটি বিক্রি করা হলেও এর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল প্রেসিডেন্ট বুশের সময়ে। ১৯৬০ সালে যুক্তরাষ্ট্র সরকার এই দূতাবাসটি নির্মাণ করে।

বিক্রি হওয়া ভবনটিতে মোট ৯টি ফ্লোর রয়েছে। মোট ২ লাখ ২৫ হাজার বর্গফুটের উপর নির্মিত এ দূতাবাস। এর মধ্যে ৬০০টি কক্ষ রয়েছে। ভবনটি কিনে নেয়ার পর কাতার রাজ পরিবার এটি সংস্কারের জন্য ১ দশমিট ৪ বিলিয়ন ডলার ব্যয়ের প্রস্তুতি নিয়েছে। সংস্কারের পর এটি ১৩৭ সদস্য বিশিষ্ট ৫ তারকা হোটেলে রূপ নেবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *