রোবট ট্রাম্প শুধুই হাসির খোরাক

 

আন্তর্জাতিক আর্টিকেল: মার্কিন প্রেসিডেন্টদের সম্মান দিয়ে তাঁদের প্রতিকৃতি বানিয়ে সাজিয়ে রাখে কার্টুন ও চলচ্চিত্র নির্মাতা জনপ্রিয় প্রতিষ্ঠান ওয়াল্ট ডিজনি। রীতি অনুযায়ী দেশটির বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পেরও একটি প্রতিকৃতি নির্মাণ করেছে তারা। তবে আর দশ জনের চেয়ে ব্যতিক্রমী ট্রাম্পের প্রতিকৃতি। কারণ এবার তৈরি করা হয়েছে রোবট। আর সেটিও দেখতে বেশ আলাদা ও উদ্ভট।

এই রোবটটি দেখেই হাসিঠাট্টায় মাতছেন দর্শনার্থী ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীরা।

সংবাদমাধ্যম টেলিগ্রাফের খবরে বলা হয়, ডিজনির ‘হল অব প্রেসিডেন্টস’-এ ট্রাম্পের রোবটটি দেখে বলা হচ্ছে, সেটির সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নয় বরং হলিউডের অস্কারজয়ী তারকা জন ভয়েটের বেশি মিল রয়েছে। জন ভয়েট অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলির বাবা।

গত মঙ্গলবার ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের অরল্যান্ডো শহরে নতুন করে সাজানো ডিজনির ‘হল অব প্রেসিডেন্ট’ উদ্বোধন করা হয়। আগের দিন কিছু সময়ের জন্য সেটি দর্শণার্থীদের জন্য খুলে দেওয়া হয়। সেখানেই দেখা মেলে ট্রাম্পের রোবটের। এত দিন প্রেসিডেন্টদের প্রতিকৃতি করা হলেও এবার করা হয়েছে রোবট। সেটি কথা বলা ও নড়াচড়া করতে পারে।

ডিজনির দাবি, রোবটটি ট্রাম্পের অনুকরণে করা হলেও দর্শনার্থীরা বলছেন অন্য কথা। তারা জানান, রোবটটির চেহারা ও চলাফেরা হুবহু ট্রাম্পের মতো না। তবে সেটির কণ্ঠস্বর নিয়ে কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। ডিজনি জানিয়েছে, রোবটের কণ্ঠস্বর ট্রাম্প নিজেই দিয়েছেন।

দর্শনার্থীদের সঙ্গে ট্রাম্পের রোবট বিভিন্ন কথা বলে। সেটি বলে, ‘প্রথম থেকেই যুক্তরাষ্ট্র এটির বাসিন্দাদের মাধ্যমে সংজ্ঞায়িত হয়ে আসছে। আমেরিকাবাসীদের আরো আশাবাদী হতে হবে। বিশ্বাস করতে হবে আমরা সবসময় ভালো কিছু করতে পারি এবং আমাদের মহান রাষ্ট্রের উৎকৃষ্ট দিনগুলো সামনে অপেক্ষা করছে।’

ট্রাম্পের রোবট সম্পর্কে টুইটারে এক ব্যবহারকারী লেখেন, ‘তাঁকে দেখতে একেবারে আবর্জনার মতো লাগছে। এটা কেমন বিষয়? লিংকন ও অন্যরা মোটামুটি নিখুঁত। এখানে ট্রাম্পের সবচেয়ে খারাপ ছবিটির অনুকরণে রোবটটি নির্মাণ করা হয়েছে।’

আরেকজন টুইট করেন, ‘এটা একেবারে সাংঘাতিক।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *